রাসূল (সা.) বলেন, ‘নারীকে চার বস্তুর কারণে বিবাহ করা হয়


খুব সুন্দরী গর্জিয়াস বউয়ের শখ ছিল, তাইনা?

আপনার বউটা হয়ত অত সুন্দরী নয়, কিংবা দেখতেও হয়তো ভাল নয়, কিন্তু সে একজন মুমেনা! সে পর্দা করে, আল্লাহ্'র দ্বীন পালন করে, আপনাকে আল্লাহ্'র জন্য অনেক অনেক ভালবাসে। ফজরের সময় আপনাকে ডেকে দেয়। আপনার সন্তানকে সে দ্বীন শিক্ষা দেয়

হা করে বসে বসে হিন্দি সিরিয়াল দেখে না! সংসারের শত অভাব অনটনের সময়ও সে ধৈর্য হারায় না। দামি গয়না গাটির বায়না ধরেনা। সে জান্নাতের স্বপ্ন দেখে আর আপনাকেও স্বপ্ন দেখায়। কত্ত বড় রহমত আপনার প্রতি আপনি কি কখনো অনুভব করেছেন??

কখনো কি এই বিশাল রহমতের জন্য মহান আল্লাহর কাছে কৃতজ্ঞ হয়েছেন?? এর চেয়ে বড় কি হতে পারে অামার প্রিয় দ্বীনি ভাইয়েরা।

'তোমাদের মধ্যে তাকওয়াবান, আল্লাহ ভীরু ব্যক্তি আল্লাহর কাছে তোমাদের সবার অপেক্ষা অধিকতর সম্মানিত।’ (সূরাহ হুজুরাত, ১৩)

আল্লাহর রাসূল (সা.) বলেন, ‘নারীকে চার বস্তুর কারণে বিবাহ করা হয়। তার সম্পদ, বংশ, রূপ ও ধর্মের কারণে। তুমি ধর্মপ্রাণাকে প্রাধান্য দাও, তোমার হস্তদ্বয় ধূলি-ধূসরিত হোক।’ (বোখারি : ১৩২, মুসলিম)

তিনি আরও বলেন, ‘দুনিয়ার সবটাই ভোগ-বিলাসের উপকরণ এবং দুনিয়ার সর্বোৎকৃষ্ট সম্পদ হলো সাধ্বী স্ত্রী।’ (মুসলিম, নাসাঈ)

তিনি অন্যত্র বলেন, ‘তোমাদের প্রত্যেকের কৃতজ্ঞ হৃদয়, জিকরকারী জিহ্বা এবং এমন মোমিনা (বিশ্বাসী) স্ত্রী হওয়া উচিত, যে তাকে আখেরাতের ব্যাপারে সহায়তা করে।’ (মুসনাদ আহমাদ, ৫/২৮২)

সমাপ্ত

আপনিও হোন ইসলামের প্রচারক ইন শা আল্লাহ ’ লেখাটি শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে!

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ